Advertisement

ফারসি শব্দঃ টেকনিক, মনে রাখার উপায়



ফারসি শব্দঃ বাংলা ভাষায় আগত ফারসি শব্দগুলোকে কয়েকটা ভাগে ভাগ করা যায়।
.
(১) ইসলাম ধর্মসংক্রান্ত: খোদা, গুনাহ, দোজখ, নামাজ, পয়গম্বর, ফেরেশতা, বেহেশত,রোজা ইত্যাদি।
.
(২) প্রশাসনিকঃ আইন, জবানবন্দি, তারিখ, দফতর, দরবার, দস্তখত, নালিশ, বাদশাহ, বান্দা, বেগম, মেথর,
.
(৩) বস্তু বা জিনিসের নাম: কারখানা, চশমা, তোশক, দোকান, দৌলত, , রসদ ইত্যাদি।
.
(৪) বিবিধ শব্দ: আদমি, আমদানি, জানোয়ার, জিন্দা, নমুনা, বদমাশ, রফতানি, হাঙ্গামা ইত্যাদি।


★ছড়ার মতো মনে রাখতে পারবেঃ-
.
খোদা গুনাহ দোজখ নামাজ পয়গম্বর
কারখান চশমা তারিখ তোষক দফতর।
রোজা ফেরেস্তা ভেস্ত দোকান দরবার
আমদানি রফতানি জিন্দা জানোয়ার।
নালিশ বাদশাহ বান্দা দৌলাত
বেগম মেথর নমুনা দস্তখত।
'
.
★চেনার উপায়ঃ-
প্রত্যয় দেখে ফারসি শব্দ চেনা যাবে। যেসব শব্দের শেষে ফারসি প্রত্যয় (কর, গর, বাজ, দার, বন্দি, সই, চি , নবীশ) থাকবে সেগুলো ফারসি শব্দ।
.
যেমনঃ
গর= কারিগর, সওদাগর
কর = জাদুকর
দার= ঝাড়ুদার, চৌকিদার, অংশীদার,
বাজ= চাপাবাজ, ধোকাবাজ,
বন্দি= রাজবন্দি, গৃহবন্দি, নজরবন্দি, কারাবন্দি,
সই= টেকসই, জুতসই, মানানসই, চলনসই,
.
ফারসি এই শব্দটা এসেছে পার্সি থেকে। পার্সি এসেছে পারস্য থেকে। পারস্য হলো ইরানের আদি নাম। অর্থাৎ ফারসি শব্দগুলো ইরানি শব্দ। কিন্তু ফরাসি হলো ফ্রান্সের ভাষা। দুইটা গুলিয়ে ফেলো না যেন।
.
শব্দের শেষে যদি কর/গর থাকে এবং তা পেশা বোঝায় তাহলে সেই শব্দগুলো ফারসি শব্দ। যেমনঃ কারিগর, জাদুকর, সওদাগর ইত্যাদি।
.
এ পর্যন্তই। আশা করে এই টপিক ক্লিয়ার করতে পেরেছি।
পরে পড়ার জন্য শেয়ার করতে ভুলো না।
শুভকামনা 💜


FI Kolpo [Fakrul Islam Kolpo]
BBA, Accounting & Information Systems.
University of Dhaka.

Post a Comment

0 Comments

Close Menu